১৬ বছরেই বিয়ে করতে পারবে মুসলিম মেয়েরা: পাঞ্জাব-হরিয়ানা হাইকোর্ট

0 8

|| বিদেশ-বিভূঁই প্রতিবেদন ||

ভারতে পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট ১৬ বছর বয়স হলেই কোনো মুসলমান মেয়ে তার পছন্দের মানুষকে বিয়ে করতে পারবেন বলে রায় দিয়েছেন।

সোমবার একটি মামলার জেরে এমন রায় দিয়েছেনে আদালত। আদালত জানিয়েছেন, ১৬ বছরের বেশি বয়সি কোনো মুসলমান মেয়ে তার পছন্দের ব্যক্তির সঙ্গে বৈবাহিক সম্পর্কে জড়াতেই পারেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, পাঠান কোটে ২১ বছরের এক যুবক ও ১৬ বছরের একটি মেয়ে পরিবারের অমতে বিয়ে করেন। কিন্তু পরিবার তাদের আলাদা করতে চাইছে, এই অভিযোগ এনে নিরাপত্তা চেয়ে আদালতের দ্বারস্থ হন ওই দম্পতি।

সেই মামলার শুনানিতে সোমবার পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টে বিচারপতি যশজিৎ সিংহ বেদী বলেন, আবেদনকারীরা (দম্পতি) শুধু মাত্র তাদের পরিবারের ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ে করেছেন বলে ভারতীয় সংবিধান বর্ণিত মৌলিক অধিকার থেকে তাদের বঞ্চিত করা যায় না।
এরপর বিচারপতি বেদী শরিয়ত আইন উল্লেখ করে বলেন, একজন মুসলমান মেয়ের বিয়ে ‘মুসলমান ব্যক্তিগত আইন’ দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। বিচারপতি জানান, স্যর দিনশাহ ফারদুনজি মোল্লার ‘প্রিন্সিপলস্ অব মহামেডান ল’ বইয়ের ১৯৫ অনুচ্ছেদ অনুসারে, ১৬ বছরের বেশি বয়সি মেয়ে তার পছন্দের ব্যক্তিকে বিয়ে করতে পারেন। আর পাত্রের বয়সও যেহেতু ২১ বছরের বেশি, তাই এই বিয়েতে কোনো বাধা থাকতে পারে না। বিচারপতি ওই দম্পতির নিরাপত্তার দায়িত্বও দেন পাঠানকোট পুলিশ প্রশাসনকে।

জেটি//এফএস

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More