বগুড়ায় গুলিতে আহত স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মারা গেছেন

0 63

।। বঙ্গকথন প্রতিবেদন ।।

বগুড়ায় ছিনতাই হওয়া অটোরিকশা উদ্ধারের জেরে প্রতিপক্ষের গুলিতে আহত স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা নাজমুল হাসান অরেঞ্জ মারা গেছেন। টানা ৮ দিন শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন থাকার পর সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে মারা যান তিনি। গত ২ জানুয়ারি শহরের মালগ্রাম ডাবতলা এলাকায় অরেঞ্জের মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করে স্থানীয় কয়েকজন। তার সঙ্গে থাকা আরো দুজনকে কুপিয়ে ও গুলি করে মারাত্মক জখমও করে হামলাকারীরা।

সোমবার রাতে শজিমেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডাক্তার আবদুল ওয়াদুদ স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা অরেঞ্জের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গণমাধ্যমকে। তিনি জানান, গুলিবিদ্ধি হবার পর থেকেই চোখসহ তার শরীরের অনেক অঙ্গই কাজ করছিলো না। এরপরও সাধ্যমত চেষ্টা করা হয়েছে। সর্বশেষ সোমবার রাতে তিনি মারা গেছেন।

এর আগে গত ২ জানুয়ারি রাত ৯টার দিকে নাজমুল হাসান অরেঞ্জ ও মিনহাজ হোসেন আপেলসহ ৩/৪ জন মালগ্রাম ডাবতলা মোড়ে বসেছিলেন। এ সময় বেলতলা মোড় থেকে ৪/৫টি মোটর সাইকেলযোগে একদল যুবক ডাবতলা মোড়ে যায়। সেখানে নেমেই তারা অরেঞ্জ ও তার সঙ্গীদের লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে। এ সময় একটি করে গুলি আপেলের পেটে এবং অরেঞ্জের মাথায় বিদ্ধ হয়। পরে হামলাকারীরা অরেঞ্জ, আপেল এবং তাদের আরেক সঙ্গীকে কুপিয়ে সেখান থেকে সটকে পড়ে।

ঘটনার পরদিন অরেঞ্জের স্ত্রী স্বর্ণালী বাদী হয়ে সদর থানায় একটি হত্যাচেষ্টা মামলা দায়ের করেন। সদর থানার ওসি সেলিম রেজা জানান, হত্যাচেষ্টা মামলাটি নিয়ম অনুযায়ী হত্যা মামলায় রূপ নেবে। মামলার ১১ আসামীর মধ্যে এরই মধ্যে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

জেটি//আরজে

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More