জাতীয় সংগীতকে অবমাননায় মমতার বিরুদ্ধে সমন জারি

0 32

|| বিদেশ-বিভূঁই প্রতিবেদন ||

জাতীয় সংগীত অবমাননার দায়ে মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যাযয়ের বিরুদ্ধে বুধবার মুম্বাইয়ের একটি আদালত সমন জারি করেছেন।

সমনে তৃণমূল সুপ্রিমোকে বলা হয়েছে, ২০২১ সালের ডিসেম্বরে মুম্বাই সফরে গিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সে সময় একটি অনুষ্ঠানে জাতীয় সংগীত বাজানোর সময় উঠে দাঁড়াননি তিনি। এই অভিযোগেই সমন জারি করা হয়েছে মমতার বিরুদ্ধে। আগামী ২ মার্চের আগে আদালতে হাজিরা দিতে হবে।

সমন জারি করে আদালত বলেছেন, যদিও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একজন মুখ্যমন্ত্রী; কিন্তু তার বিরুদ্ধে অগ্রসর হতে কোনো বাধা নেই। কারণ তিনি সরকারি কর্তব্য পালন করেননি।

মুম্বাই বিজেপি ইউনিটের কর্মকতা বিবেকানন্দ গুপ্তা ২০২১ সালের ডিসেম্বরে মমতার বিরুদ্ধে জাতীয় সংগীত অবমাননার একটি অভিযোগ নিয়ে এফআইআর নথিভুক্ত করার দাবি জানান। মুম্বাইয়ের মাঝগাঁওয়ে নগর দায়রা আদালতের বিচারক পিআই মোকাশি এই সমন জারি করেছেন।

আদালত বুধবার বলেছেন, অভিযোগকারীর (বিবেকানন্দ গুপ্তা) সমস্ত বিবৃতি, তার দেয়া ভিডিও এবং ইউটিউব থেকে প্রাপ্ত ভিডিও ক্লিপ থেকে এটা স্পষ্ট যে, অভিযুক্ত (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) জাতীয় সংগীত গাওয়ার সময় বসে ছিলেন এবং হঠাৎ করেই মঞ্চ ছেড়ে চলে যান। এটি প্রমাণ করে যে, অভিযুক্ত জাতীয় সম্মানের অবমাননা প্রতিরোধ আইন, ১৯৭১-এর ধারা ৩-এর অধীন শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন।

সেই সঙ্গে আদালত জানিয়েছেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু তিনি সেদিন অফিশিয়াল ডিউটি পালন করতে অনুষ্ঠানে উপস্থিত হননি। তাই কোনো অনুমতি ছাড়া তার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে আদালতের কোনো বাধা নেই।

যদিও সশরীরে হাজিরা না দিয়ে আইনজীবীকে পাঠিয়েও মমতা নিজের বক্তব্য পেশ করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন আদালত।

অভিযোগকারী বিবেকানন্দ গুপ্ত দাবি করেছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ২০১৫ সালের আদেশ লঙ্ঘন করেছেন। এই আদেশে বলা হয়েছে, জাতীয় সংগীত বাজানো বা গাওয়ার সময় দর্শকদের অবশ্যই মনোযোগী হতে হবে।

জেটি//এফএস

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More