সোনাতলায় ফের ‘বিদ্রোহে’র জয়!

0 16

||বঙ্গকথন প্রতিবেদক||

আবারো দলীয় প্রতীকের বিরুদ্ধে ভোটের লড়াইয়ে জিতেছেন সোনাতলা পৌরসভার মেয়র জাহাঙ্গীর আলম আকন্দ নান্নু। মঙ্গলবারের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শাহিদুল বারী খান রাব্বানীকে প্রায় ৩ হাজার ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করেছেন বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সদ্য অব্যহতিপ্রাপ্ত এই সদস্য। এই পৌরসভার প্রথম নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে হারিয়ে মেয়র হন নান্নু।  

মঙ্গলবার সকাল ৯টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয় সোনাতলা পৌর এলাকায়। প্রথমবারের মতো ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন-ইভিএম-এ ভোটাদানের সুযোগ পান স্থানীয় ভোটাররা। দিনভর কেন্দ্রগুলোতে তাই ভোটারদের ভিড় ছিলো চোখে পড়ার মতো। টানা বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ শেষে কেন্দ্রে কেন্দ্রে শুরু হয় ভোট গণনা।

প্রযুক্তিনির্ভর ভোট, তাই নতুন পৌরপিতার নাম জানতে বেশি সময় অপেক্ষা করতে হয় নি বাসিন্দাদের। নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান মেয়র জাহাঙ্গীর আলম আকন্দ নান্নু ১১টি কেন্দ্রে মোট ভোট পান ৭ হাজার ৯৬৩। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত শাহিদুল বারী খান রব্বানী পেয়েছেন ৫ হাজার ২২১ ভোট। এছাড়া নির্বাচনের আরেক স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী সাকিল রেজা বাবলা পেয়েছেন ১ হাজার ২৮৬ ভোট।

পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে মোট ভোটার রয়েছেন ১৯ হাজার ৫২৩ জন। এর মধ্যে মঙ্গলবার ভোট দিয়েছেন ১৪ হাজার ৪৫২ জন। নির্বাচন কমিশনের তথ্যমাফিক, এই পৌরসভায় এবার ভোটপ্রদানের হার ৭৪ দশমিক ২ শতাংশ।

সোনাতলা পৌরসভা ২০০১ সালে গঠন হলেও সীমানা সংক্রান্ত জটিলতার কারণে প্রথম নির্বাচন হয় ২০১৬ সালে। ওই নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের প্রার্থী সাহিদুল বারী খান রব্বানীকে ৮৫ ভোটে পরাজিত করে মেয়র হয়েছিলেন বিদ্রোহী প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম আকন্দ নান্নু। মেয়র হবার পর নান্নু জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মনোনীত হলেও, এবারের নির্বাচনে আবারো দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে নির্বাচনে অংশ নেয়ায় সোমবার তাকে ওই পদ থেকে অব্যহতি দেয়া হয়।

এমএইচ//

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More