সংঘর্ষ-প্রাণহানিতে শেষ হলো দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচন

0 20

|| বঙ্গকথন প্রতিবেদন ||

দেশের বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া আর সংঘর্ষের মধ্য দিয়ে শেষ হলো দ্বিতীয় ধাপে ইউপি নির্বাচনের ভোট গ্রহণ। বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত ভোট প্রদান করেন ৬৩ জেলার ১১৫ টি উপজেলার ৮৩৫ টি ইউনিয়ন পরিষদের ভোটাররা। দিনভর নির্বাচনী সহিংসতায় প্রাণ হারিয়েছেন ৬ জন, আহত হয়েছেন শতাধিক মানুষ। বিভিন্ন সংঘর্ষের ঘটনায় নরসিংদীতে তিনজন, কক্সবাজারে একজন, চট্টগ্রামে একজন ও কুমিল্লায় একজন মারা গেছেন। এছাড়া হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ উপজেলার জলসুখা ইউনিয়ন, জামালপুরের সদর উপজেলার মেষ্টা ইউনিয়ন, সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার কালারুকা ইউনিয়ন, মেহেরপুরের মুজিবনগর ও গাংনি উপজেলায়, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের আলাইয়ারপুর ইউনিয়ন, শরীয়তপুর ও ঠাকুরগাঁওসহ বেশ কিছু এলাকায় সহিংসতার ঘটার খবর পাওয়া গেছে।

এদিকে নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম-সচিব এসএম আসাদুজ্জামান জানান, দেশের দশম ইউপি নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে ৮৪৮টি ইউপির তফসিল ঘোষণা করা হয়েছিল। কিন্তু পরে তালিকা থেকে একটি ইউনিয়ন পরিষদ বাদ দেয়া হয়। স্থগিত করা হয় সাতটি ইউপির ভোট।

এবারে তিন হাজার ৩১০ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ মোট ৪১ হাজার ২১৮ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। তাদের মধ্যে সংরক্ষিত সদস্য পদে ৯ হাজার ১৬১ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ২৮ হাজার ৭৪৭ জন রয়েছেন। নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ৮ হাজার ৪৯২টি। প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে পুলিশ ও আনসারের ২২ জন করে সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। প্রথম ধাপে দেশের ৩৬৪ ইউপির ভোট হয়েছে। তৃতীয় ধাপে আগামী ২৮ নভেম্বর এক হাজার ৩ ইউপিতে ভোট হবে। চতুর্থ ধাপের নির্বাচন আগামী ২৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে।

জেটি// আরজে

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More