লম্বা চুল রেখে বাউল গান, কিশোরের মাথা মুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ

0 36

||বঙ্গকথন প্রতিবেদন||

বগুড়ায় এক কিশোর বাউল শিল্পীর মাথা মুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে এক তরুণসহ দুই গ্রাম্য মোড়লকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে উপজেলার জুড়ি মাঝপাড়া থেকে ওই তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়। বাউল মেহেদী হাসানের (১৭) অভিযোগ, সব সময় সাদা পোষাক পরা, লম্বা চুল রাখা আর বাউল গান গাওয়ার অপরাধে তার মাথা ন্যাড়া করে দিয়েছেন গ্রামের মোড়লরা।

শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সিরাজুল ইসলাম জানান, জুড়ি মাঝপাড়া গ্রামের কিশোর মেহেদী হাসান ষষ্ঠ শ্রেণি পর্যন্ত পড়ার পর স্থানীয় বাউল শিল্পী মতিয়ার রহমান মতিনের সাথে ঘুরে কয়েক বছর ধরে বাউলগান শিখছিলো। এজন্য সে চুল বড় করে সবসময় সাদা জামা-লুঙ্গি পরে বিভিন্ন স্থানে গান গাইতে যেতো। মেহেদীর অভিযোগ, বিষয়টি নিয়ে গ্রামের মোড়লরা তাকে প্রায়-ই বকাবকি করতেন। একপর্যায়ে গত শনিবার রাতে তার ঘরে ঢুকে স্থানীয় মোড়ল শাফিউল ইসলাম, মেজবাউল ইসলাম, আবু তাহের, ফজলু মিয়া ও তারেক রহমানসহ বেশ কয়েকজন তাকে চড়-থাপ্পড় মারে এবং মাথা ন্যাড়া করে দেয়।   

ওসি জানান, মঙ্গলবার রাতে কিশোর বাউল মেহেদী থানায় গ্রাম্য মোড়লদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়েরের পর রাতেই শাফিউল, মেজবাউল ও তারেককে গ্রেফতার তরা হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

এদিকে, অভিযুক্তদের স্বজনরা বলছেন, বাউল গানের জন্য নয়, আজান ও নামাজের সময় গানবাজনা করতো বলেই তাকে বকাঝকা করা হয়েছে। আটক তরুণ তারেক রহমানের ভাই আতাউর রহমানের দাবি, বেশ কিছুদিন ধরে মেহেদী সন্ধ্যায় ও রাতে নামাজের সময় তার ঘরে বেদি বানিয়ে ও ধূপ জ্বালিয়ে তসবিহ নিয়ে গানবাজনা করতো। সেসব নিষেধ করতেই স্থানীয়রা মুসল্লিরা সেখানে গিয়েছিলেন। এসময় অতি উৎসাহী কিছু তরুণ তার মাথা ন্যাড়া করে দেয়।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More