রোমাঞ্চে ইউনাইটেডকে হতাশ করে ইউরোপা ভিয়ারিয়ালের

0 30

||খেলার মাঠ প্রতিবেদন||

শেষ ১৫ বছরে কোনো ইউরোপিয়ান ফাইনালে স্প্যানিশ দলের বিপক্ষে জয় নেই কোনো ইংলিশ দলের। সে ইতিহাস বদলে দেওয়ার লক্ষ্যটা পূরণ হলো না ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। ইউরোপা লিগের ফাইনালে নির্ধারিত সময় ১-১ ড্রয়ের পর সাডেন ডেথে ১১-১০ ব্যবধানে হারল দলটি। আর ইউরোপা লিগ বিশেষজ্ঞ উনাই এমেরির ভিয়ারিয়াল জিতল তাদের ৯৮ বছরের ইতিহাসে প্রথম কোনো ইউরোপীয় শিরোপা।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের রানার্স আপের বিপক্ষে লা লিগার সপ্তম দলের লড়াই, ইউরোপার ফাইনালের বিল্ড আপে এ বিষয়টাই যেন বড় হয়ে উঠে আসছিল দারুণভাবে। সাবেক ইউনাইটেড মিডফিল্ডার পল স্কোলস তো বলেই বসেছিলেন, ‘আপনি এখানে ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে খেলছেন, যারা বাজে লা লিগা মৌসুমেও লিগ শেষ করেছে ৭-এ থেকে। আপনি রিয়াল-বার্সার কথা ভাবুন, তাহলেই বুঝবেন তারা কত খারাপ খেলেছে। ইউনাইটেডের তো ম্যাচটা হেসে খেলে জেতা উচিত!’

এমন মহা নাটকীয় ম্যাচও হয়! নাটকের চেয়েও নাটকীয়। পুরো ম্যাচজুড়ে উত্তেজনা। টাইব্রেকারে একের পর এক শট হলো। কারও হার মানার লক্ষ্মণ নেই। কিন্তু ২২তম শটে গিয়ে বাজিমাত করলো ভিয়ারিয়াল। শেষ পর্যন্ত মহা নাটকীয় ম্যাচটিতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে টাইব্রেকারে ১১-১০ গোলে হারিয়ে ইউরোপা লিগের শিরোপা জিতে নিলো স্প্যানিশ ক্লাব ভিয়ারিয়াল।

পোল্যান্ডের এনার্জা গদানস্ক স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় ইউরোপের দ্বিতীয় সারির টুর্নামেন্ট, ইউরোপা লিগের ফাইনাল। মুখোমুখি ইংল্যন্ডের ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এবং স্প্যানিশ ক্লাব ভিয়ারিয়াল। করোনা মহামারির মধ্যে দুই বছর পর এই প্রথম দর্শকের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হলো ইউরোপা লিগের ফাইনাল। মহা নাটকীয় এই ম্যাচটি নির্ধারিত সময় ১-১ গোলে ড্র থাকার পর গড়াল অতিরিক্ত ৩০ মিনিটে।

ভিয়ারিয়ালের উনাই এমরির সামনে প্রথম ম্যানেজের হিসাবে চারবার ইউরোপা লিগ জিতে ইতিহাস গড়ার হাতছানি ছিল, সঙ্গে ইউনাইটেডের সামনে ছিল চার বছর পর প্রথম শিরোপা জয়ের সুযোগ। ঐতিহাসিক পেনাল্টি শ্যুট আউটের পর শেষ হাসি হাসলেন এমরিই, জিতে নিলেন তার চতুর্থ ইউরোপা শিরোপা।

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড অধিনায়ক হ্যারি মাগুইর সম্পূর্ণ ফিট না হওয়ায় তাকে বেঞ্চে রেখেই মাঠে নামে ওলে গানার সোলশায়েয়েরের দল। প্রথম একাদশে এডিনসন কাভানি, মার্কাস র‌্যাশফোর্ড, ব্রুনো ফার্নান্ডেজ ও মেসন গ্রিনউডকে দলে রেখে নিজের মনোভাব স্পষ্ট করে দেন সোলশায়ের। অপরদিকে ভিলারিয়ালের হয়ে বিস্ময়বালক ইয়েরেমি পিনো সর্বকনিষ্ঠ স্প্যানিশ ফুটবলার হিসাবে কোন ক্লাবের হয়ে কোন বড় ইউরোপিয়ান ফাইনালে মাঠে নামেন এই ম্যাচে।

আরআই

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More