রূপপুরে পরমানু চুল্লি স্থাপন, আরেক ধাপ এগুলো বাংলাদেশ

0 42

||বঙ্গকথন প্রতিবেদন||

পাবনার রূপপুরে নির্মাণাধীন দেশের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রথম ইউনিটের মূলযন্ত্র রিয়্যাক্টর প্রেসার ভেসেল বা পরমাণু চুল্লি পাত্র রোববার স্থাপন করা হয়েছে। রোববার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে পরমাণু চুল্লি পাত্র স্থাপনের অনুমতি দেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সরাসরি উপস্থিত হতে পারলে অনেক ভালো লাগতো। কিন্তু সেটা সম্ভব হলো না। আমি এই রিয়্যাক্টর প্রেসার ভেসেল স্থাপনের অনুমতি দিচ্ছি।‘ এরপরই রিয়্যাক্টরটি স্থাপন করা হয়। এর মধ্য দিয়ে পরমাণু শক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহারকারী দেশের তালিকায় বাংলাদেশ আরো একধাপ এগিয়ে গেল।

বর্তমানে বিশ্বে মোট ৩৩টি দেশ পারমাণবিক বিদ্যুৎ উৎপাদন করছে। পরিকল্পনামাফিক, বাংলাদেশ আগামী ২০২৩ সালে পারমাণবিক বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে যাচ্ছে রূপপুরে। এই চুল্লি স্থাপনের মধ্য দিয়ে সেই প্রক্রিয়া অনেক দূর এগিয়ে গেলো।

রূপপুর প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন। ২০১১ সালের ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় পারমাণবিক শক্তি করপোরেশন রোসাটম রূপপুরে দেশের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের জন্য বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করে। ১২ দশমিক ৬৫ বিলিয়ন ডলারের প্রকল্পের প্রাথমিক চুক্তিটি ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে স্বাক্ষরিত হয়।

প্রকল্প সূত্র জানায়, রোববার স্থাপিত চুল্লীটি (রিঅ্যাক্টর প্রেশার ভেসেল) রাশিয়া থেকে জলপথে ১৪ হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে গত বছরের অক্টোবরে বাংলাদেশে পৌঁছে। সেটি স্থাপন করার জন্য গত এক বছর ধরে প্রয়োজনীয় অবকাঠামো প্রস্তুত করা হয় প্রকল্প এলাকায়। পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র চালুর বা কমিশনিং প্রক্রিয়ায় এই চুল্লী স্থাপন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। পরমাণু বিজ্ঞানীরা রিএ্যাক্টর প্রেসার ভেসেলকে পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ‘হৃদপিন্ড’ বলে থাকেন। ১ লাখ ১৩ হাজার কোটি টাকারও বেশি খরচের এই প্রকল্পে নব্বই ভাগ টাকা ঋণ দিয়েছে রাশিয়া। একই সঙ্গে আন্তঃরাষ্ট্রীয় কয়েকটি চুক্তির মাধ্যমে পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রটি নির্মাণ করছে রুশ ঠিকাদার এটমস্ট্রয় এক্সপোর্ট। পরিকল্পনা অনুযায়ী ২০২৩ সালে প্রথম ইউনিট থেকে ১ হাজার ২০০ মেগাওয়াট এবং একই পরিমাণ বিদ্যুৎ দ্বিতীয় ইউনিট থেকে পাওয়া যাবে ২০২৪ সাল নাগাদ।

জেডটি//এমএইচ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More