মারা গেছেন নাট্যব্যক্তিত্ব ড. ইনামুল হক

0 62

||সংস্কৃতির মঞ্চ প্রতিবেদন||

নাট্যব্যক্তিত্ব-অভিনেতা ড. ইনামুল হক মারা গেছেন। একুশে পদকপ্রাপ্ত দেশবরেণ্য এই অভিনেতা ৭৮ বছর বয়সে সোমবার (১১ অক্টোবর) রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। ড. ইনামুল হকের মেয়ে হৃদি হক গণমাধ্যমকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

‘বিবাহ সংকট’ নাটকের দৃশ্যে ড. ইনামুল হক

ইনামুল হক একাধারে অভিনেতা, নাট্যকার, নির্দেশক ও শিক্ষক হিসেবে দেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে শক্ত অবস্থানে ছিলেন ক্যারিয়ারের বেশিরভাগটা জুড়েই। তার পুরো পরিবারই নাটকের সঙ্গে জড়িত। ইনামুল হকের দাম্পত্য সঙ্গী বরেণ্য নাট্যজন লাকী ইনাম। তাদের সংসারে দুই মেয়ে হৃদি হক ও প্রৈতি হক। হৃদির স্বামী অভিনেতা লিটু আনাম, আর প্রৈতির স্বামী অভিনেতা সাজু খাদেম।

১৯৪৩ সালের ২৯ মে ফেনী সদর উপজেলার মোটবী ইউনিয়নে জন্ম হয় ইনামুল হকের। বাবার নাম ওবায়দুল হক আর, মা রাজিয়া খাতুন। ফেনী পাইলট হাইস্কুল থেকে মাধ্যমিক, ঢাকার নটরডেম কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগ থেকে ড. ইনামুল হক অনার্স ও এমএসসি সম্পন্ন করেন। এরপর ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টার ইউনিভার্সিটি থেকে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন তিনি।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়-বুয়েটে দীর্ঘ ৪৩ বছর শিক্ষকতায় নিয়োজিত এই গুণী মানুষটি দুর্দান্ত অভিনয়ের পাশাপাশি টেলিভিশনের জন্য ৬০টি নাটক রচনা করেন। তার রচিত আলোচিত টিভি নাটকের মধ্যে রয়েছে ‘সেইসব দিনগুলি’, ‘নির্জন সৈকতে’ এবং ‘কে বা আপন কে বা পর’। ১৯৬৮ সালে তার রচিত নাটক ‘অনেকদিনের একদিন’ প্রথম বাংলাদেশ টেলিভিশন প্রচারিত হয়। নাটকটির প্রযোজনায় ছিলেন বাংলা অভিনয়ের আরেক কিংবদন্তি আবদুল্লাহ আল মামুন। ২০১২ সালে ড. ইনামুল হক একুশে পদক লাভ করেন। আর ২০১৭ সালে তাকে স্বাধীনতা পুরস্কারে ভূষিত করে বাংলাদেশ।

জেডটি//এমএইচ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More