ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে নিজস্ব ব্যাংক ও বীমা প্রতিষ্ঠান নিয়ে ভাবছেন এফবিসিসিআই

0 84

সুদের হার কম রেখে সকল ব্যবসায়ীদের প্রদান কাঙ্ক্ষিত অর্থায়ন সহজ করতে ব্যাংক বীমা ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠার বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই।

রোববার এফবিসিসিআইর পরিচালনা পর্ষদের পঞ্চম নিয়মিত বৈঠকে এসব বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত হয় বলে জানান সংগঠনটির সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম

রাতে শেখ ফাহিম বলেন, “আমরা নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছি ব্যাংক ও ইনস্যুরেন্সের বিষয়ে। ব্যাংক হচ্ছে এসএমই ও প্রি-এসএমইদের ঋণ দেওয়ার জন্য। ইনস্যুরেন্স হচ্ছে এই লোনগুলোকে ক্রেডিট বিল গ্যারান্টি দেওয়ার জন্য, অ্যাজ এ কোলেটারাল ডিলিং। এটা টেকনলোজিকে অ্যানাবেল করে করা হবে।”

প্রচলিত ব্যাংকিং পদ্ধতি থেকে একটু আলাদা অর্থাৎ ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে শাখা-উপশাখা ছাড়াই এফবিসিসিআইয়ের ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে অচিরেই সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোর কাছে প্রস্তাবনা তুলে ধরা হবে বলে জানান এফবিসিসিআই সভাপতি।

তিনি বলেন“এফবিসিআই জেনারেল বডি মেম্বাররা এই ব্যাংকের শেয়ারহোল্ডার হতে পারবেন। এফবিসিসিআইর সব চেম্বার ও অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য যারা আছেন, তারাও চাইলে শেয়ারহোল্ডার হতে পারবেন।

“সারা বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা এই ব্যাংকের সেবা নিতে পারবেন। চাইলে মালিকানাও নিতে পারবেন। এই ব্যাংক থেকে যে লোন হবে সেটা খুবই কম সুদের হবে। যেহেতু এই লোন মর্টগেজবিহীন হবে তাই ইনস্যুরেন্স সেটার ক্রেডিট রিক্স গ্যারান্টিটা দেবে।”

তিনি আরও বলেন, “একটি হাসপাতাল ও মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠা করার প্রাথমিক সিদ্ধান্তও হয়েছে। এগুলো সবই নীতিগত সিদ্ধান্ত বলা যেতে পারে। এখন সিনিয়র ব্যবসায়ী নেতা যারা আছেন, উনাদের সমন্বয়ে কমিটি হবে। কমিটি বিষয়গুলো পদ্ধতিগত অগ্রগতি কিভাবে করা যায়, সেটা নিয়ে কাজ করবে। এই প্রস্তাবগুলো এখনও সরকারের কাছে বা সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পাঠানো হয়নি। কিন্তু আমাদের পক্ষ থেকে যে আলোচনাটুকু প্রয়োজন সেটা আমরা সেরে নিয়েছি। বাকি কাজও ধীরে ধীরে আগাবে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More