বিষপানে প্রেমিকার মৃত্যু,চার তলা থেকে লাফিয়ে প্রেমিকের আত্মহত্যার চেষ্টা!

0 243

||বঙ্গকথন প্রতিবেদক||

প্রেমিকের সঙ্গে বাকবিতণ্ডার জেরে অ্যালুমিনিয়াম ফসফাইড (গ্যাস ট্যাবলেট) সেবন করে বগুড়ার বিয়াম ল্যাবরেটরি স্কুল ও কলেজের একাদশ শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছেন। নাহিদা আকতার নামের নামের ওই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর খবরের পরপরই তার প্রেমিক জাকারিয়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চার তলা থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। ঘটনার পর আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

শহরের ছিলিমপুর পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক শামীম হোসেন জানান, কয়েক মাস আগে ফেসবুকে পরিচয়ের মাধ্যমে কুষ্টিয়ার বাসিন্দা জাকারিয়ার (২৭) সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে নাহিদা আকতারের। রোববার জাকারিয়া বগুড়ায় আসেন নাহিদার সঙ্গে দেখা করতে। শহরের বিভিন্ন স্থানে ঘোরাফেরার একপর্যায়ে বাকবিতণ্ডা হলে নাহিদা সেখান থেকে রাগ করে বৃন্দাবনপাড়া এলাকায় তার ছাত্রীনিবাসে চলে যান। বিকেলে নিজের কক্ষে গ্যাস ট্যাবলেট সেবনের পর নাহিদা অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তার সহবাসিন্দারা জাকারিয়াকে মোবাইলফোনে বিষয়টি জানান। পরে জাকারিয়া সেখান থেকে নাহিদাকে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

সন্ধ্যার কিছু পরে চিকিৎসাধীন নাহিদা মারা গেলে জাকারিয়া মিনিট পাঁচেকের মধ্যেই হাসপাতালের চতুর্থ তলার বারান্দা থেকে মাটিতে লাফ দেন। পরে হাসপাতালে কর্তব্যরত পুলিশ এবং স্থানীয়রা সেখান থেকে উদ্ধার করে তাকে জরুরি বিভাগে ভর্তি করে। মাথায় গুরুতর আঘাত পাওয়া জাকারিয়ার অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে চিকিৎসকদের বরাতে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী নাহিদ আকতারের বাড়ি জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার রায়কালী গ্রামে। তিনি বগুড়ার বিয়াম ল্যাবরেটরি স্কুল ও কলেজে ভর্তির পর শহরের বৃন্দাবনপাড়া এলাকার সানজিদা ছাত্রীনিবাসে থেকে পড়াশোনা করতেন। আর হাসপাতালে ভর্তির সময় জাকারিয়া জানিয়েছেন, তার বাড়ি কুষ্টিয়ার দহগ্রাম এলাকায়।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More