তিনদিনে ৩ করোনা আক্রান্তসহ ৫১০ বাংলাদেশী ফিরেছে ভারত থেকে

0 95

||বঙ্গকথন প্রতিবেদন||

ভারত থেকে যাতে করোনার ভারতীয় ভেরিয়েন্ট বাংলাদেশে প্রবেশ করতে না পারে সেজন্য ভারতের সাথে সীমান্ত পথে পাসপোর্টধারী যাত্রী পারাপার ১৪ দিনের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। বেনাপোলের ওপারে আটকেপড়া বাংলাদেশিরা দূতাবাসের অনুমতি নিয়ে দেশে ফিরতে শুরু করেছেন বিশেষ ব্যবস্থায়।

গত তিন দিনে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ৩ জন করোনা আক্রান্ত রোগীসহ ৫১০ জন বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট দিয়ে দেশে ফিরেছে। অন্যদিকে বাংলাদেশ থেকে ১০৯ জন ভারতীয় নাগরিক ফিরে গেছে তাদের দেশে।

ফেরত আসা বাংলাদেশিদের বেনাপোলের ঘন জনবসতি এলাকার ৭টি আবাসিক হোটেলে ১৪ দিনের জন্য প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে করোনা আক্রান্ত ৩ জন। ভারতে গিয়ে করোনা পজেটিভ হন তারা।

চিকিৎসা শেষে হাতে খরচের টাকা না থাকায় ভারত ফেরত বাংলাদেশিরা নিজ খরচে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে দুঃসময় পার করছেন বলে অভিযোগ সায়েম নামে এক যাত্রীর। তবে সরকারি নির্দেশনা মানতে তারা বাধ্য হয়েছে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন স্বাস্থ্য বিভাগের মেডিকেল অফিসার আশরাফুজ্জামান বলেন, ভারত ফেরত বাংলাদেশিরা বেনাপোল বন্দর এলাকার সাতটি আবাসিক হোটেলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে আছেন। সেখানে সব খরচ যাত্রীদের বহন করতে হচ্ছে। এছাড়া ফেরত আসা তিন বাংলাদেশি করোনা পজেটিভ যাত্রীকে যশোর সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন ওসি আহসান হাবিব বলেন, বাংলাদেশি উপ-হাইকমিশনারের ছাড়পত্র থাকায় আটকে পড়া ৫১০ জন যাত্রী ভারত থেকে দেশে ফিরেছেন। ভারতীয় নাগরিক ফিরেছেন ৬৭ জন। তবে নিষেধাজ্ঞার পর থেকে বাংলাদেশি কোনো পাসপোর্টধারী যাত্রী নতুন করে ভারতে যায়নি এবং ভারত থেকেও আসে নি।

এমএইচ//

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More