চলছে মহাষ্টমীর আয়োজন, কুমারী পূজা হচ্ছে না এবারো

0 32

||বঙ্গকথন প্রতিবেদন||

সারা দেশে শারদীয় দুর্গাপূজার পঞ্চম দিনে ঢাকঢোল আর উলুধ্বনিতে মুখরিত মণ্ডপগুলোতে চলছে দুর্গোৎসব। বুধবার (১৩ অক্টোবর) সকাল থেকে সব পূজামণ্ডপে শুরু হয়েছে মহাষ্টমী। তবে মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে এবারো ঢাকা কিংবা দেশের অন্যান্য প্রান্তে মহাষ্টমীর মূল আকর্ষণ কূমারী পূজা হচ্ছে না।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস, মহাষ্টমীতে দেবী নতুন রূপে পৃথিবীতে অধিষ্ঠিত হন। শাস্ত্রমতে ১৬টি উপকরণ দিয়ে সকালে শুরু হয়েছে মহাষ্টমীর আনুষ্ঠানিকতা। এরপর অগ্নি, জল, বস্ত্র, পুষ্প ও বাতাস এই পাঁচ উপকরণ দিয়ে পূর্ণতা আনা হবে পূজার রীতিতে। মহাঅষ্টমীতে রাত ১১টা ৫৪ মিনিটে সন্ধি পূজা শুরু হবে ও তা শেষ হবে রাত ১২টা ৪২ মিনিটে। অষ্টমী ও নবমী তিথির সন্ধিক্ষণে এই সন্ধিপূজা অনুষ্ঠিত হয়। এদিন দুপুরে মহাপ্রসাদ বিতরণ করা হবে। রাজধানীর ঢাকেশ্বরীসহ সারা দেশের বিভিন্ন পূজা মণ্ডপে আজও প্রতিমা দর্শন করবেন ভক্তরা।

হিন্দু সম্প্রদায়ের বিশ্বাস অনুযায়ী প্রতি শরতে শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে স্বর্গলোক কৈলাস ছেড়ে মর্ত্যে আসেন দেবী দুর্গা। নির্দিষ্ট তিথি পর্যন্ত বাবার বাড়িতে কাটিয়ে আবার ফিরে যান দেবালয়ে। দেবীর অবস্থানকালে এই পাঁচ দিন পৃথিবীতে ভক্তরা ‘দেবী দুর্গার’ বন্দনা করেন। দুর্গোৎসবে গতকাল মঙ্গলবারমহাসপ্তমীতে ত্রিনয়নী দেবী দুর্গার চক্ষুদান করা হয়। নবপত্রিকা প্রবেশ ও স্থাপন শেষে দেবীর মহাসপ্তমীবিহিত পূজা অনুষ্ঠিত হয়।

হিন্দু ধর্ম মতে, এবার দেবী এসেছেন ঘোড়ায় চড়ে আর যাবেন দোলায় চড়ে। গত সোমবার (১১ অক্টোবর) ষষ্ঠীপূজার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে শারদীয় দুর্গোৎসব। টানা পাঁচ দিনের আনন্দ উৎসবের পর শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) বিজয়া দশমীর দিন দেবী বিসর্জনের মাধ্যমে দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা শেষ হবে এবার।

জেটি//এমএইচ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More