ঘরোয়া টোটকা কমাবে আক্কেল দাঁতের ব্যথা

0 67

।।ডক্টর’স চেম্বার প্রতিবেদন।।

জীবনে দাঁতের নানা রকম সমস্যার মধ্যে অন্যতম জটিল সমস্যা হচ্ছে আক্কেল দাঁতের অসহ্যকর যন্ত্রণা। কম-বেশি আমরা সবাই আক্কেল দাঁতের সমস্যায় ভুগে থাকি। এর ব্যথা এতটাই ভয়ানক যে বলে বোঝানোর মতো নয়। আক্কেল দাঁত মুখের অন্য দাঁতগুলোর ক্ষতি করে। আক্কেল দাঁত তোলাও কঠিন ও কষ্টসাধ্য। মূলত আক্কেল দাঁত অনেক সময় পাশের দাঁতে ধাক্কা বা চাপ সৃষ্টি করতে পারে। আর এই সময় মাড়ির প্রদাহের কারণে ব্যথা হতে পারে। তাছাড়া দুই দাঁতের সংযোগস্থলে খাদ্যকণা জমা থাকায় প্রদাহ হতে পারে। এতে চোয়ালের সামনের দিকের দাঁতগুলো বিচ্ছিন্ন বা আঁকাবাঁকা হয়ে যেতে পারে। পরবর্তী সময়ে যেসব উপসর্গ দেখা দিতে পারে, সেগুলো হচ্ছে- মাড়ির প্রদাহ বা সংক্রমণ হাড়ের প্রদাহ দাঁতের ক্ষয় স্নায়ুর ওপর চাপ আক্কেল দাঁতের ব্যথা থেকে মুক্তি পেতে গাদা গাদা ব্যথার ওষুধ না খেয়ে, ঘরোয়া উপায়েই ব্যথা কমাতে পারেন।

চলুন জেনে নেয়া যাক সেই উপায়গুলো-

কচি পেয়ারা পাতা পানিতে সিদ্ধ করে নিন। এবার এই সিদ্ধ পাতা কিছুক্ষণ চিবিয়ে ফেলে দিন। ব্যথা গায়েব!

পিপারমিন্টে এক টুকরো তুলো ডুবিয়ে মাড়িতে লাগান। পিপারমিন্ট চা-ও খেতে পারেন, এটাও খুব ভালো। হালকা গরম পানিতে লবণ দিয়ে কুলি করে ফেলুন। এটি ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া মেরে ফেলে এবং মাড়িকে সুস্থ রাখে।

ভিনেগারে তুলা ভিজিয়ে ব্যথার জায়গায় চেপে রাখুন। কিছুক্ষণ পর ব্যথা কমে আসবে। ঠাণ্ডা-গরম সেঁক দেয়া যেতে পারে বাইরে থেকে। আইস ব্যাগে বা কাপড়ে এক টুকরো বরফ পেচিয়ে সেঁক দিন।

পেঁয়াজ অর্ধেক করে কেটে ব্যথার জায়গায় রেখে, দাঁত দিয়ে চাপ দিন, যাতে পেঁয়াজ থেকে রস বের হয়। পেঁয়াজের রস ব্যথা কমায়।

তুলার বল পানিতে ভিজিয়ে বেকিং সোডা মাখিয়ে নিন। এবার বলটা ব্যথার জায়গায় চেপে ধরে থাকুন। খানিক্ষণের মধ্যেই ব্যথা কমে যাবে।

আক্কেল দাঁতের উপর একটা লবঙ্গ রেখে দিন। চিবানোর দরকার নেই। যতক্ষণ না ব্যথা কমছে লবঙ্গটা ফেলবেন না। লবঙ্গ তেলও ব্যবহার করতে পারেন। শুধু আক্কেল দাঁত নয়, এমনি দাঁতের ব্যথাতেও কাজ দেয় লবঙ্গ!

এসএফ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More