গাকের মত আধুনিক চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান হলে বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় সম্ভবঃ লিটন

0 46

বৃহস্পতিবার দুপুরে বগুড়া গাক চক্ষু হাসপাতাল পরিদর্শন করেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। পর্রিদর্শন শেষে তিনি বলেন, বগুড়ার গ্রাম  উন্নয়ন কর্ম (গাক) পরিচালিত চক্ষু হাসপাতালের চিকিৎসাসেবা বিশ্বমানের । এছাড়া দরিদ্র মানুষের বিনামূল্যে সেবা পাওয়ার যে ব্যবস্থা সেটা সত্যিই প্রশংসনীয়।

রাসিক মেয়র রাজশাহীতেও এমন একটি হাসপাতাল গড়ে তোলার ব্যাপারে সম্মত হওয়ায় গাক কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, রাজশাহীতে প্রতিবছর প্রায় ৩ লাখ মানুষ চোখের সমস্যা নিয়ে ভারতে চিকিৎসার জন্য যায়। এতে বিপুল অর্থ ব্যয় হয়। তবে গাকের মত এধরণের আধুনিক চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে পারলে কষ্টার্জিত বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় করা সম্ভব হবে। মেয়র লিটন গাকের অন্যান্য কার্যক্রমেরও প্রশংসা করেন।

গাক টাওয়ারে সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক ড. খন্দকার আলমগীর হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় অন্যানের মধ্য রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মোস্তাফিজুর রহমান ও অধ্যাপক ড. সাইদুজ্জামান, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. এবিএম শরীফ উদ্দিন, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আসাদুর রহমান দুলু ও গাবতলী উপজেলা চেয়ারম্যান রফি নেওয়াজ খান রবিন বক্তৃতা করেন। গাক এর সিনিয়র পরিচালক ড. মাহবুব আলম পুরো অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন।

এর আগে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন শহরের বনানী এলাকায় গাক টাওয়ারে এসে পৌঁছালে সংস্থার প্রধান ড. খন্দকার আলমগীর হোসেন তাঁকে স্বাগত জানান। পরে তাকে নিয়ে চক্ষু হাসপাতালের পাশাপাশি গাকের বিভিন্ন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More