আবারও ভাতা চালু হচ্ছে ১৬২ বীর মুক্তিযোদ্ধার

0 163

।।বঙ্গকথন প্রতিবেদন।।

‘প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা নন’ এমন অভিযোগে দেশের প্রায় তিন হাজার গেজেটধারী বীর মুক্তিযোদ্ধার মাসিক সম্মানি ভাতা স্থগিত রয়েছে। ভুক্তভোগী এসব মুক্তিযোদ্ধা এর বিরুদ্ধে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) কাছে আপিল করেছেন। আপিল শুনানিতে অভিযোগ প্রমাণিত না-হওয়ায় ঢাকা, চট্টগ্রাম ও ময়মনসিংহ বিভাগের ১৬২ জনের ভাতা আবারও চালুর সুপারিশ করেছে জামুকা। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, ‘উপজেলা যাচাই-বাছাই কমিটি গঠন করা হয়েছিল। সারা দেশের কিছু গেজেটধারী মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধেও লিখিত অভিযোগ এসেছিল যে তারা ‘অমুক্তিযোদ্ধা’। এসব অভিযোগ যাচাই-বাছাই করতে সংশ্লিষ্ট উপজেলায় পাঠানো হয়। ওইসব ব্যক্তি যাচাই-বাছাই কমিটির সামনে নিজেদের মুক্তিযোদ্ধা হওয়ার সপক্ষে প্রয়োজনীয় তথ্যপ্রমাণ দেখাতে ব্যর্থ হয়। ফলে কমিটি তাদের মাসিক সম্মানি ভাতা বন্ধ করে সনদ বাতিলের সুপারিশ করেছে। সে অনুযায়ী সংশ্লিষ্টদের ভাতা বন্ধ রাখা হয়েছে। তাদের মধ্যে যারা আপিল আবেদন করেছেন, তাদের আবারও শুনানি হয়েছে। আপিল কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে জামুকা ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়।

জানা গেছে, এ ধাপে তিন বিভাগে জামুকার সদস্যদের নেতৃত্বে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মাসিক সম্মানি ভাতা বন্ধের বিরুদ্ধে আপিল শুনানি হয়। মোট ৩৩৫টি শুনানির বিপরীতে ১৪৭ জন অনুপস্থিত থাকেন ও ২৬ জন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা নন বলে প্রমাণিত হয়। বাকি ১৬২টি জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না-হওয়ায় তাদের ভাতা চালুর সুপারিশ করে জামুকা। এর আগে প্রথম ধাপে ঢাকা, সিলেট, ময়মনসিংহ, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের এক হাজার ৭৬৪ জনের শুনানি সম্পন্ন হয়। এর মধ্যে মুক্তিযোদ্ধার সপক্ষে প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্ত হাজির করায় এক হাজার ৩৫ জনের ভাতা চালুর সিদ্ধান্ত দেয় সংশ্লিষ্ট আপিল শুনানি কমিটি।

এসএফ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More