আজ কবি বেগম সুফিয়া কামালের ২২তম মৃত্যুবার্ষিকী

0 10

||বঙ্গকথন প্রতিবেদন||

বাংলা সাহিত্যের অন্যতম কবি ও নারী আন্দোলনের পথিকৃৎ বেগম সুফিয়া কামালের ২২তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ । ১৯৯৯ সালের ২০ নভেম্বর মৃত্যুবরণ করেন সুফিয়া কামাল। বাংলাদেশী নারীদের মধ্যে তিনি প্রথম যাকে পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত করা হয়।

বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক, প্রগতিশীল এবং নারীমুক্তি আন্দোলনের পথিকৃৎ কবি সুফিয়া কামালের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তাঁর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে পৃথক বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সে সময় কবি সুফিয়া কামালের বিদ্রোহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী।

শনিবার পৃথক বাণীতে রাষ্ট্রপতি বলেন, কবি বেগম সুফিয়া কামাল নারীসমাজকে অজ্ঞানতা ও কুসংস্কারের বেড়াজাল থেকে মুক্ত করতে আজীবন সংগ্রাম করে গেছেন। মহান ভাষা আন্দোলন, স্বাধিকার, মুক্তিযুদ্ধসহ গণতন্ত্র ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার প্রতিটি আন্দোলনে তিনি আমৃত্যু সক্রিয় ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারের জন্য যে আন্দোলন শুরু হয়েছিল, তিনি ছিলেন তাঁর অন্যতম উদ্যোক্তা।

কবি বেগম সুফিয়া কামাল

প্রধানমন্ত্রী তাঁর বাণীতে বলেন, শিশুতোষ রচনা ছাড়াও দেশ, প্রকৃতি, গণতন্ত্র, সমাজসংস্কার এবং নারীমুক্তিসহ বিভিন্ন বিষয়ে কবি বেগম সুফিয়া কামালের লেখনী আজো পাঠককে আলোড়িত ও অনু্প্রাণিত করে। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম মহিলা হোস্টেলকে ‘রোকেয়া হল’ নামকরণের দাবি জানান। ১৯৬১ সালে পাকিস্তান সরকার রবীন্দ্রসংগীত নিষিদ্ধ করলে এর প্রতিবাদের আন্দোলনে কবি যোগ দেন। কবি বেগম সুফিয়া কামাল যে আদর্শ ও দৃষ্টান্ত রেখে গেছেন তা যুগে যুগে বাঙালি নারীদের জন্য অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে থাকবে।

১৯১১ সালের ২০ জুন বরিশালের শায়েস্তাবাদে জন্মগ্রহণ করেন বেগম সুফিয়া কামাল। পিতার নাম সৈয়দ আব্দুল বারী এবং মাতা সৈয়দা সাবেরা খাতুন। তাঁর উল্লেখযোগ্য ২টি কাব্যগ্রন্থ সাঁঝের মায়া, উদাত্ত পৃথিবী ছাড়াও গল্প, ভ্রমনকাহিনী, স্মৃতিকথা, শিশুতোষ, অনুবাদ, আত্মজীবনীমূলক রচনায় তাঁর লেখনী প্রশংসানীয়। কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ স্বাধীনতা পুরস্কার, একুশে পদক, বাংলা একাডেমী পুরস্কারসহ মোট ৫০টির বেশি পুরস্কার পেয়েছেন কবি বেগম সুফিয়া কামাল।

এসএ//এফএস

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More