আজারবাইজান সীমান্তে ইরান-তুরস্ক উত্তেজনা

0 52

||বিদেশ-বিভূঁই প্রতিবেদন||

আজারবাইজান সীমান্তে সেনা মোতায়েনের পর তুরস্ক এবং আজারবাইজান যৌথ সামরিক মহড়া শুরু করেছে। বিশ্লেষকদের ভাষ্য, এর মাধ্যমে তুরস্ক ইরানকে কঠোর বার্তা দিতে চাইছে। 

ইসতানবুলের গণমাধ্যম ডেইলি সাবাহর জানাচ্ছে, সম্প্রতি কয়েকটি ঘটনায় আজারবাইজানের ওপর ব্যাপক ক্ষোভ থেকে দেশটির সীমান্তে সামরিক মহড়া শুরু করে ইরান। গত মাসে বাকুতে তুরস্ক, পাকিস্তান ও আজারবাইজানের যৌথ মহড়া এবং চিরশত্রু ইসরায়েলের সঙ্গে আজারবাইজানের ঘনিষ্ঠ সামরিক সম্পর্ক নিয়েও উদ্বিগ্ন ইরান। তেহরানের দাবি, গত বছর নাগোর্নো কারাবাখ নিয়ে আর্মেনিয়ার সাথে ৪৪ দিনের যুদ্ধে আজারবাইজান ইসরায়েলের কাছ থেকে নজরদারি ড্রোনসহ সামরিক সরঞ্জামাদির সুবিধা নিয়েছে।

তবে ইরানের সামরিক মহড়ায় আগের মতো আজারবাইজানের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে তুরস্ক। দেশ দুটি মিলে যৌথ সামরিক মহড়া শুরু করেছে। বিশ্লেষকরা বলছেন, এর মাধ্যমে তুরস্ক ইরানকে বোঝাতে চাইছে আজারবাইজান একা নয়, প্রতিবেশী তুরস্ক সর্বদা বাকুর পাশে আছে। 

আজারবাইজানে সাবেক যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত ম্যাথিউ ব্রেইজা বলেন, ইরানের সামরিক মহড়ার পর তুরস্ক-আজারবাইজানের সামরিক মহড়া একদিকে আগুন উসকে দিচ্ছে অন্যদিকে আগুনে পানিও ঢালছে। তুরস্ক বোঝাতে চাইছে, আজারবাইজানকে ভয় দেখালে আঙ্কারা ছেড়ে কথা বলবে না।

এমএইচ//

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More