অজ্ঞাত ৮ শ’ ছাত্র জনতার বিরুদ্ধে মামলা

0 63

|| বঙ্গকথন প্রতিবেদন ||

মাঈনুদ্দিন নিহতের পর বাসে আগুন ও ভাংচুরের ঘটনায় দু’টি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।

অনাবিল পরিবহনের বাসের চাপায় শিক্ষার্থী মাঈনুদ্দিন ইসলাম নিহত হওয়ার দিনে রামপুরায় বিক্ষুব্ধ মানুষের ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে ‘উচ্ছৃঙ্খল ছাত্র ও জনতা’র নামে বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে পৃথক দুটি মামলা করেছে। দুটি মামলায় অন্তত আটশ’ জনকে অজ্ঞাত করে আসামি করা হয়েছে।

বুধবার হাতিরঝিল থানায় একটি মামলা করেন ওই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এ কে এম নিয়াজউদ্দিন মোল্লা। আর রামপুরা থানায় অপর মামলাটি করেন থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ মারুফ হোসেন।

দুপুরে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মোহাম্মদ ফারুক হোসেন।

হাতিরঝিল থানায় করা মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, সোমবার রাত পৌনে ১১টার দিকে রাজধানীর রামপুরা ডিআইটি সড়কে মোল্লা টাওয়ারের সামনে ‘উচ্ছৃঙ্খল ছাত্র ও জনতা’ বেআইনিভাবে সমাবেশ ঘটিয়ে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সড়কে চলমান গাড়ি ভাঙচুর ও পেট্রলবোমা দিয়ে গাড়িতে আগুন এবং পথচারীদের ভয়ভীতি প্রদর্শন ও মারধর করে। এর আগে মাইনুদ্দিন ইসলামের মা রাশেদা বেগম বাদি হয়ে একটি মামলা করেন।

এদিকে নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীরা রাজধানীর রামপুরা ব্রিজের ওপর পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী এখনো অবরোধ কর্মসূচি পালন করছে।

জেটি //আরজে

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More