ফুল না, ট্রফি চান সালাউদ্দিন

0 30

খেলার মাঠ প্রতিবেদনঃ

চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর কাজী মো. সালাউদ্দিনের সঙ্গে দেখা করেছেন জাতীয় দল এবং বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের বিভিন্ন ক্লাবের ফুটবলাররা। নতুন ফুটবল মৌসুম নিয়ে নিজেদের কিছু দাবি নিয়ে নির্বাচনের পর কথা বলবেন-তা আগেই কাজী মো. সালাউদ্দিনকে বলে রেখেছিলেন ফুটবলাররা।

মঙ্গলবার ৩৫ জনের মতো ফুটবলার কাজী মো. সালাউদ্দিনের সঙ্গে দেখা করে তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন এবং তাদের দাবিগুলো পেশ করেছেন। পরিত্যক্ত মৌসুমের পাওনা, নতুন মৌসুমের পারিশ্রমিক-এমন ছয়টি বিষয় লিখিতভাবে বাফুফের সভাপতির কাছে লিখিতভাবে উপস্থাপন করেছেন আশরাফুল-সোহেল রানারা।

ফুটবলাররা যখন কাজী মো. সালাউদ্দিনের হাতে ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানান তখন দেশের সর্বকালের সেরা ফুটবলার বাফুফে সভাপতি বলেন, ‘তোমরা আমাকে ফুল নয়, একটি ট্রফি দাও। বিজয়ের পর আজ তোমরা ফুল নিয়ে এসেছ। যদি ট্রফি জিতে আমার হাতে দিতে পারো তাহলে এর চেয়ে বেশি খুশি হবো।’

এখন থেকে ফুটবল পরিচালনায় আরও কঠোর হবেন উল্লেখ করে বাফুফে সভাপতি খেলোয়াড়দের বলেছেন, ‘তোমাদের কথাগুলো শুনলাম। আমি একটা কথা বলবো। ফুটবলের উন্নয়নের জন্য আমার যত কঠোর হতে হয় হবো। সবকিছু নিয়মের মধ্যেই চলবে। তোমাদের মাঠে ভালো খেলতে হবে। তোমরা ভালো রেজাল্ট করলেই ফুটবলের উন্নতি চোখে পড়বে।’

২০১৯-২০ ফুটবল মৌসুম করোনাভাইরাসের কারণে মাঝপথে পরিত্যক্ত হওয়ার পর খেলোয়াড়দের দেনা-পাওনা নিয়ে কি হবে সে বিষয়ে জটিলতা তৈরি হয়েছিল। প্রফেশনাল লিগ কমিটির সর্বশেষ সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছিল ফুটবলারদের পুরোনো ক্লাবেই খেলতে হবে। পরিত্যক্ত মৌসুমে যার যে বেতন ছিল ২০২০-২১ মৌসুমে হবে তার ২৫ ভাগ।

খেলোয়াড়দের দাবি, ৬০ ভাগ এবং নতুন মৌসুমের দলবদল শুরুর আগেই ২০১৯-২০ মৌসুমের সব বকেয়া পরিশোধ করা। বাফুফে সভাপতি ফুটবলারদের আশ্বস্ত করেছেন নতুন মৌসুমে তাদের পারিশ্রমিক পরিত্যক্ত মৌসুমের ৪০ ভাগ করে দেয়ার। বৃহস্পতিবার বিকেলে লিগ কমিটির সভা। সেখানেই সব কিছু চূড়ান্ত হবে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More