ধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রীর পরিবারকে সমাজচ্যুত করার ঘটনায় গ্রাম্য মাতব্বর গ্রেফতার

0 191

||উপজেলা প্রতিবেদক, ধুনট (বগুড়া)||

ধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রীর পরিবারকে সমাজচ্যুত করার ঘটনায় গ্রাম্য মাতব্বর গ্রেফতার বগুড়া ব্যুরো বগুড়ার ধুনট উপজেলায় অপহরণের পর ধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রীর পরিবারকে সমাজচ্যুত করার অভিযোগে গ্রামের স্থানীয় মাতবর আবু সাঈদ শেখকে (৬০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার তাকে ওই এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

উপজেলার গোপালনগর ইউনিয়নে প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় গত ১৬ জুলাই স্থানীয় বখাটে মাসুদ রানা এবং ইউপি সদস্য ফজলুল হক বাবুর নেতৃত্বে অপহরণ করা হয় সপ্তম শ্রেণির ওই স্কুল ছাত্রীকে। ১২ আগস্ট এই ঘটনায় মামলা করেন অপহৃত ছাত্রীর মা। এক মাস নয় দিন ধরে বিভিন্ন স্থানে আটকে রেখে ধর্ষণের পর অচেতন অবস্থায় পাশের উপজেলায় রাস্তার ধারে ওই স্কুল ছাত্রী ফেলে যায় আসামীরা। পরে ধর্ষণের ঘটনাটি বারবার মীমাংসার অপেচষ্টাও চালান স্থানীয় প্রভাবশালীরা। গ্রাম্য মাতবর পান্না সরকার, আবু সাইদ ও সোলায়মান আলী সালিশ বৈঠক ডেকে ২৮ জুলাই স্কুলছাত্রীর পরিবারকে সমাজচ্যুত করার ঘোষণা দেয়। আপোষ-মীমাংসার নামে বাদীর কাছে থেকে জোর করে সাদা কাগজে স্বাক্ষরও নেন মাতবররা।

ঘটনাটি নিয়ে গেলো শুক্রবার সংবাদ প্রচার করে কয়েকটি সংবাদ মাধ্যম। পরদিন মামলার মূল দুই অভিযুক্তের একজন ইউপি সদস্য ফজলুল হক বাবুকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা জানান, ধর্ষণের অভিযোগ মীমাংসার জন্য স্থানীয় মাতবররা সালিশ করেছেন-এমন অভিযোগের পর এই বিষয়েও তদন্ত করছে পুলিশ। তারই প্রেক্ষিতে সোমবার গ্রেফতার করা হয় গ্রাম্য মাতবরদের একজন আবু সাঈদ শেখকে। সালিশের আয়োজন করা মাতবরদেরও এই মামলার আসামী করা হয়েছে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

উপজেলা-আরএ//এমএইচ//

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More